স্বপ্নধারার অগ্রদূত বিবিএম গ্রুপ

তিন হাজারের অধিক সংখ্যক লোকজন নিয়ে বিবিএম গ্রুপ সম্বনিত হয়ে গড়ে তুলেছে একনিষ্ট পরিবার। বিভিন্ন ধরনের অংশগ্রহনমূলক কাজে জড়িত হয়ে থাকে এই বিবিএম গ্রুপ। বিশেষ করে বিবিএম গ্রুপ বিভিন্ন জায়গায় ট্যুর প্যাকেজের কাজ নিয়ে অগ্রসর হয়ে থাকে। দেশ এবং দেশের বাহিরে ভ্রমন নিয়ে আছে বিবিএম গ্রুপের অগ্রগামী ভূমিকা। এছাড়া বিভিন্ন জায়গায় ভ্রমন বিষয়ক মেলা নিয়ে …

হোটেল রেস্তরাঁর ক্ষতি

দেশের ২০২০ সালে করোনাভাইরাস মহামারী সংক্রমণের পর থেকে প্রায় সব রকম ছোট-বড় হোটেল-রেস্তরাঁ বন্ধ রয়েছে। সর্বস্তরের মানুষকেই যখন লকডাউনে প্রায় গৃহবন্দী থাকতে হচ্ছে, তখন হোটেল-রেস্তরাঁ খোলা থাকে কিভাবে। সেসব হোটেল-রেস্তরাঁয় যাবে কে বা কারা? আর খাবেই বা কি? সবই তো ঝুঁকিপূর্ণ। করোনাকালে সংক্রমণের ছোঁয়াছানির খাবার গ্রহণসহ সরবরাহে রয়েছে নানা বিধিনিষেধ ও নিয়ম-কানুন। এর ফলে হোটেল-রেস্তরাঁর …

সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে লজ্জাবতী বানর অবমুক্ত

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে বিপন্ন প্রজাতির একটি লজ্জাবতী বানর অবমুক্ত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় বানরটি সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত করা হয়। সাতছড়ি রেঞ্জ কর্মকর্তা মাহমুদ হোসেন বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে রগুনন্দন পাহাড়ের পার্শবর্তী গ্রাম শাহপুর থেকে বানরটি উদ্ধার করেছে বন বিভাগ। সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত বানরের শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করা হয়। বানরের শারীরিক অবস্থা …

পর্যটন শিল্পে ধস

বহুল সংক্রমণ করোনার বিস্তারে দেশের বিভিন্ন খাতের ওপর সমূহ বিপর্যয় নেমে এসেছে। মানুষের সঙ্গে মানুষের মিলনসৌধে অনাবশ্যক ঝড়ে তছনছ হয়ে যায় জীবনযাত্রার নানাবিধ উপকরণ, সচল অর্থনীতির চাকাও হোঁচট খাওয়ার দুর্দশা সংশ্লিষ্টদের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় ফেলে দেয়। ধনধান্যে পুষ্পে ভরা শ্যামল বাংলার অকৃত্রিম প্রাকৃতিক সম্ভার বিশ্বের বৃহৎ এই বদ্বীপটির এক অবিস্মরণীয় সম্পদ। নদীবিধৌত ও সমুদ্র পরিবেষ্টিত আবহমান বাংলা …

দেশে নিষিদ্ধ হচ্ছে ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম

ফ্রি ফায়ার ও পাবজির মতো জনপ্রিয় দুই গেম বন্ধ হচ্ছে বাংলাদেশে। এর আগে পাবজি সাময়িকভাবে বন্ধ করা হলেও পরে আবার চালু করা হয়। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে এরইমধ্যে বিষয়টি নিয়ে সুপারিশ করা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এ সুপারিশ করা হয়েছে । বিষয়টি নিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতেও আলোচনা …

সেন্টমার্টিনে ভাঙ্গন ধরেছে জেটি ও রাস্তাঘাটে, উপড়ে গেছে গাছপালা

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ইয়াস এর প্রভাবে জোয়ারের পানি বৃদ্ধি পেয়ে কক্সবাজারের উপকূলের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। পূর্ণিমা তিথির জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ৩/৪ ফুট বৃদ্ধি পেয়ে উপকুলে আছড়ে পড়েছে। সামুদ্রিক জোয়ারের ঢেউয়ের আঘাতে সেন্টমার্টিন দ্বীপের জেটিতে ভাঙ্গন ধরেছে। সেন্টমার্টিনের পূর্ব ও পশ্চিম দিকে কিছু এলাকা, কুতুবদিয়া, মহেশখালী, টেকনাফ ও সদর উপজেলার বেশকিছু এলাকা ভাঙ্গা বেড়িবাধ দিয়ে …

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে লন্ডভন্ড বেড়িবাঁধ, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে পানির উচ্চতা অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পাওয়ায় কক্সবাজার জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। উপড়ে পড়েছে গাছপালা, বিধ্বস্ত হয়েছে বহু ঘরবাড়ি। জেলার কুতুবদিয়া, মহেশখালী, টেকনাফ ও সেন্টমার্টিন দ্বীপের অর্ধশতাধিক গ্রামে ঢুকে পড়েছে জোয়ারের পানি। কক্সবাজার শহরের অন্তত তিনটি এলাকায় বেড়িবাঁধ উপচে পানি লোকালয়ে প্রবেশ করেছে। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে হাজারো মানুষ। কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কেও আঁচড়ে …

দুই দিন পর লঞ্চ চলাচল শুরু

ঘূর্ণিঝড় যশের কারণে বন্ধ থাকার দুই দিন পর অভ্যন্তরীণ রুটে নৌযান চলাচলের অনুমতি দিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ। ফলে আজ বৃহস্পতিবার (২৭ মে) দুপুর থেকে শুরু হয়েছে লঞ্চ চলাচল। তবে এক ইঞ্জিনবিশিষ্ট নৌযান ছাড়া বাকি সব নৌযান চলাচল করতে পারবে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা মিজানুর রহমান। তিনি জানান, আবহাওয়া পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসতে শুরু করায় এই …

রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে ডাবের পানি

বর্তমানে অনেকেই ব্লাড সুগারের সমস্যায় ভোগেন। রক্তে অনিয়ন্ত্রিত শর্করার বৃদ্ধি ডেকে আনে নানা বিপদ। রক্তে শর্করার পরিমাণ তাই নিয়ন্ত্রণে রাখা খুবই আবশ্যক। রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে গেলে যেমন কিডনির সমস্যা, হৃদরোগ, চোখের সমস্যা ইত্যাদি নানা রোগের কারণ হয়ে দাঁড়ায়, আবার শর্করার পরিমাণ কমে গেলেও কিন্তু বিপদ। তাই রক্তে শর্করার পরিমাণ বা ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখা …

ঘরের বাতাস বিশুদ্ধ করে যেসব গাছ

নাসার ‘ক্লিন এয়ার স্টাডি’ অনুসারে কিছু সাধারণ ইনডোর প্ল্যান্ট আমাদের বাড়িতে বিষাক্ত গ্যাস যেমন- ফর্মালডিহাইড, বেনজিন বা অ্যামোনিয়া থেকে শোষণ করে ঘরের বাতাসকে প্রাকৃতিকভাবে বিশুদ্ধ করে। স্টেট অফ গ্লোবাল এয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী দুষিত বায়ু আমাদের গুরুতর স্বাস্থ্যঝুঁকির কারণ, এর ফলে ২০১৬-১৭ সালে বিশ্বব্যাপী ৭ মিলিয়নেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। নাসার পরীক্ষিত কিছু ইনডোর প্ল্যান্টসগুলো হলো: …