১ সেপ্টেম্বর থেকে আগের ভাড়ায় চলবে গণপরিবহন

সারা দেশে আগের মতো সাধারণ ভাড়ায় ফিরতে সম্মত হয়েছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির নেতারা। আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে আগের ভাড়ায় ফিরতে চান তারা। বাস মালিকদের এ ব্যাপারে নির্দেশনাও দিয়েছে সমিতি।

গতকাল বুধবার রাতে এক জরুরি বৈঠকে বসেন গণপরিবহন মালিকরা। সেখানে দেশে চলমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে জারি করা বর্ধিত ভাড়ার নির্দেশনা মন্ত্রণালয় থেকে বাতিলের গ্রিন সিগন্যাল পাওয়ার পর আগের সাধারণ ভাড়ায় গণপরিবহন চালানোর সিদ্ধান্ত নেন তারা।

বৈঠকের পর বাংলাদেশ বাস পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে সাধারণ ভাড়ায় গণপরিবহন চালানোয় সমিতির সিদ্ধান্তের কথা জানান।

এনায়েত উল্যাহ বলেন, ‘আগের ভাড়ায় ফিরতে ব্যাপারে দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। আমরা তো চেয়েই আসছি, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির নেতারা এ ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন। সুরক্ষানীতি কঠোরভাবে মেনে প্রতি সিটে যাত্রী বসানোর বিষয়টিকে অধিক গুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে।’

বাংলাদেশ বাস পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব আরও বলেন, ‘আমরা ১ সেপ্টেম্বর থেকে পূর্বের ভাড়ায় ফিরতে সুরক্ষানীতি মেনে প্রস্তুতি নিতে ইতোমধ্যে বাস মালিকদের বলে দিয়েছি। যাত্রী এবং বাসকর্মীদের স্বাস্থ্য নির্দেশিকা মেনে চলতে বলা হয়েছে।’

এর আগে গত মঙ্গলবার জনস্বার্থে এবং বিদ্যমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে শর্তসাপেক্ষে গণপরিবহনের পুরোনো ভাড়ায় ফিরে যাওয়ার বিষয়টি সরকার চিন্তা ভাবনা করছে বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এক অনুষ্ঠানে শিগগিরই গণপরিবহনে আগের ভাড়ায় ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলেও জানান তিনি।

মালিক-শ্রমিকদের সঙ্গে আলোচনা করার পর প্রধানমন্ত্রী এবং কেবিনেট সচিবের সঙ্গে কথা বলে শিগগিরই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে বলে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ওবায়দুল কাদের। পরিবহনে মাস্ক পরিধান শতভাগ বাধ্যতামূলক, যাত্রীদের সিটে বসে ভ্রমণ করতে হবে; দাঁড়িয়ে কোনোভাবেই যাত্রী নেওয়া যাবে না বলেও তিনি হুঁশিয়ারি করেছিলেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.