শীতে ঠাণ্ডা পোশাক ব্যবহারে এই বিষয়গুলো মেনে চলুন

বাড়ছে শীত, উত্তুরে হাওয়া বইছে। আবার শীতের পোশাক বের করতে হবে। আলমারি কিংবা ড্রয়ারে বন্দী থাকা পোশাক নিয়ে অনেকেরই ব্যস্ত সময় কাটছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দীর্ঘ দিন বদ্ধ থাকার পর হুট করে শীতের পোশাক পরা উচিত নয়। কেননা তাতে অদৃশ্য জীবাণু ও ময়লা থাকতে পারে। তাই ভালোভাবে পরিষ্কার না করে সেগুলো পরা বুদ্ধিমানের কাজ নয়। খবর সংবাদ প্রতিদিনের।

শীতের কাপড় কীভাবে পরিষ্কার রাখা যায়, সে ব্যাপারে বিশেষজ্ঞরা ‍কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। পরামর্শগুলো হলো-

১) উলের তৈরি পোশাক সোয়েটার বা মাফলার বাসায় ধোয়াই ভাল। এর জন্য টাকা খরচ করে লন্ড্রিতে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। বাসায় এ কাপড়গুলো ধোয়ার সময় বিশেষ লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। এতে উলের পোশাক ভালো থাকে। তবে ধোয়ার পর এমন জিনিস কড়া রোদে শুকাতে দেবেন না। তাতে রং নষ্ট হয়ে যায়।

২) অনেকেই লেদারের জ্যাকেট পরতে ভালবাসেন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, এর বাড়তি যত্ন নেয়া জরুরি। বছরের সবসময়ই এর খেয়াল রাখতে হয়। এমনিতে ঠান্ডা জায়গায় রাখবেন। মাঝে মধ্যে হালকা রোদে দিয়ে ব্রাশ করে নিতে পারেন।

৩) লেদারের বা অন্য জ্যাকেটের আরেকটি সমস্যা থাকে। জিপের সমস্যা। অনেকদিন আলমারি বা দেরাজে থাকার ফলে জিপের চেন জ্যাম হয়ে যায়। মোম বা তেল দিয়ে একটু ঘষে নিলে ঠিক হয়ে যায়।

৪) শীতের এই সময় লেপ, কম্বল ও কাঁথার কদর বেশি। এগুলোর বিশেষ খেয়াল রাখতে হয়। মোটা কম্বল, লেপ রোদে সপ্তাহে একবার রোদে দিয়ে নেবেন। চাইলে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে নিতে পারেন। কাঁথার ক্ষেত্রেও তা করবেন। লেপ, কম্বল ও কাঁথার কাভারগুলো সার্ফের পানিতে ধুয়ে নিবেন। তা কিছুক্ষণ রেখে দেবেন। তারপর কেঁচে নেবেন। এতে ময়লা তাড়াতাড়ি পরিষ্কার হয়। তবে হ্যাঁ, শীতের পোশাক ঘন ঘন ধোবেন না। এতে নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.