মধ্যপ্রাচ্যে যাবার অপেক্ষায় ১ লাখের বেশি বাংলাদেশি শ্রমিক

করোনা পরিস্থিতির কারণে এক লাখের বেশি শ্রমিকের বিদেশ যাত্রা আটকে আছে।

এদের মাঝে ৮৫ শতাংশ সৌদি আরবসহ মোট ৯৫ শতাংশ যাবেন মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে, বাকিরা অন্যান্য দেশে।

আজ বুধবার (১৫ জুলাই) অনলাইনে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে জনশক্তি রপ্তানিকারকদের সংগঠন

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সিসের (বায়রা) মহাসচিব শামীম আহমেদ চৌধুরী

নোমান এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, বিদেশগামী এসব কর্মীর মাঝে কারও ভিসা হয়েছে, আবার কারও টিকিট করা হয়েছিল।

কিন্তু করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে তারা বিদেশ যেতে পারেননি। তারা যেন সবাই বিদেশ যেতে পারেন সে

বিষয়ে কোরবানির ঈদের পর নিয়োগকর্তা দেশের সাথে কথা বলা হবে।
তিনি আরও বলেন, এসব কর্মীর ভিসা ও টিকিটসহ বিভিন্ন কাজ করতে রিক্রুটিং এজেন্সিগুলোর প্রায় ১৬ কোটি

টাকা খরচ হয়েছে। এ বিষয়ে আমরা সরকারি প্রণোদনা চেয়েছি। করোনা পরবর্তী সময়ে আমরা দক্ষ শ্রমিক

পাঠানোর জন্য কাজ করব। যাতে কোনো দুর্যোগ আসলেও আমাদের কর্মীদের কোনও সমস্যা না হয়।
শামীম আহমেদ চৌধুরী বলেন, অনেকে বলছে সৌদি বা অন্য দেশ থেকে ৮ থেকে ১০ লাখ লোক দেশে ফেরত আসবে।

এ তথ্য সঠিক নয়। করোনাভাইরাস পরবর্তী সময়ে দেশগুলো যখন কাজ উন্মুক্ত করে দেবে তখন সব কর্মী আবার

কাজে যোগদান করতে পারবেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.