বিশ্বমিডিয়ায় বাংলাদেশের ‘রানি’

বাংলাদেশের ‘রানি’ এখন বিশ্বমিডিয়ায়। তাকে নিয়ে শুধু বাংলাদেশেই নয়, সীমানা পেরিয়ে দূরদেশেও মাতামাতি হচ্ছে। তাই বাংলাদেশের ছোট্ট গরু রানি’কে নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক পোস্ট। মনে করা হচ্ছে, রানিই হতে যাচ্ছে বিশ্বে এ যাবতকালের মধ্যে সবচেয়ে ছোট্ট বা ক্ষুদ্রাকার গরু। তাকে দেখতে জাতীয় লকডাউন ভেঙে দূর দূরান্ত থেকে হাজার হাজার মানুষ সমবেত হচ্ছেন।

রানির বয়স ২৩ মাস। আর একমাস হলেই তার বয়স দু’বছর হয়। কিন্তু গায়েগতরে বাড়েনি সে।

এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার ছবি, ভিডিও প্রকাশ হওয়ার পর ভাইরাল হয়ে গেছে রানি। তার অনেক ভক্ত দেখতে যাচ্ছে। সাংবাদিকরা ছুটে যাচ্ছেন রিপোর্ট করতে। তাকে দেখতে পাশের গ্রাম থেকে এসেছিলেন রিনা বেগম (৩০)। তিনি বলেছেন, আমার জীবনে কখনো এত্ত ছোট গরু দেখিনি।

নির্বোধ এই প্রাণিটি এরই মধ্যে তারকা খ্যাতি পেয়েছে। তার উচ্চতা মাত্র ২০ ইঞ্চি। আর লম্বা ২৫ ইঞ্চি। কৃষকরা বলছেন, সে-ই বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু। সাভারের চারিগ্রামের শিকড় এগ্রোর ম্যানেজার এমএ হাসান হাওলাদার বলেছেন, রানির ওজন মাত্র ৫৭ পাউন্ড। তিন মাসের মধ্যে তাকে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে স্থান দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে। তিন দিনে কমপক্ষে ১৫ হাজার মানুষ রানিকে দেখতে গিয়েছেন। তিনি আরো বলেন, করোনা ভাইরাসের লকডাউন ভঙ্গ করেও দূর থেকে মানুষ ছুটে আসছে।

তাদের বেশির ভাগই এই রানির সঙ্গে সেলফি তুলতে চান। স্থানীয় সরকারের একজন কর্মকর্তা সাজেদুল ইসলাম বলেন, ওই ফার্মে এত মানুষকে উপস্থিত হতে না দেয়ার জন্য মালিকপক্ষকে বলেছি। কারণ, তারা রোগ নিয়ে আসতে পারেন। এতে রানির স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়তে পারে। তিনি আরো বলেন, রানির এই গঠনের জন্য জেনেটিক প্রজনন দায়ী থাকতে পারে। এর ফলে সে আর বড় হবে না।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.