একটি পেয়ারার গল্প

রশিদ বাজারে গেলেন পেয়ারা কিনতে I বাজারে গিয়ে দেখলেন অনেক মানুস এই করনা ভাইরাসের সময়ে I মানুসের গিজগিজ করছে বাজারে I যে যার মতন পারছে সে অনেক বাজার করছে I রশিদ সাহেবের বেবাক চিন্তায় পরে গেছেন, এই করনা  ভাইরাসের সময়ে এত বাজার কেন দরকার I মানুস কি না খেয়ে মরে গেছে I নাহ হয় হায় হতাস হয়ে মরে গেছে I যাই হোক তার মেয়ে বায়না ধরেছে পেয়েরা তার চাই I কি আর করা রশিদ সাহেব তার মেয়ের আবদার  রাখতে যাইয়া পেয়েরা খুজছে I অবশেষে পাওয়া গেল পেয়েরার লোককে I বাজার এর এক কনে বসে ছিল উনি I পেয়ারা বিক্রির জন্য, পেয়ারার লোকের কাছে যেয়ে পেয়েরার দাম শুনে রশিদ সাহেব অবাক  হয়ে গেলেন পেয়ারার দাম শুনে I ৪০ টাকা কেজি পেয়ারা I কি আর করা মেয়ের বায়না উনাকে রাখতে হবে I অপরদিকে পেয়ারার লোকের মুখ কালো করে রাখছে ঈ উনার দাবি এই বাজার ভাল হলে উনি ৮০ টাকা কেজি পেয়ারা বিক্রি করতে পারতেন I রশিদ সাহেব তার কথা শুনে কোন অবাকই হোন নাই বরং তার কথায় সহমত দিলেন  I করনা  ভাইরাসের কারনে মানুসের যে জন সমাগম তাতে মানুসের  ভাইরাসের সংক্রমণ অনেক বেশি I মানুসের এখন অনেক ঝামেলা এই করনা  ভাইরাসের কারনে মানুস এখন দিনের পর দিন না খেয়ে থাকে  কাজ করতে পারে না  কোথায় ও যেতে পারে না চলাফেরা করতে পারে না আরও কত নানাবিধ সমস্যা জরিত যাই হোক পেয়ারা অবশেষে কেনা হল রশিদ সাহেবের,  আর তার মাথায় চিন্তা ঘুরপাক খেল করনা ভাইরাস আদ ও চলে যাবে নাকি এরকমই থাকবে!!!!!!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.